বুধবার, অক্টোবর ২৮, ২০২০
Home শিক্ষাঙ্গন ইবির শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্য: ঘুরেফিরে সাবেক প্রক্টরের নাম

ইবির শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্য: ঘুরেফিরে সাবেক প্রক্টরের নাম

- Advertisement -

যোগাযোগ ডেস্কঃ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যের অডিও ক্লিপে ঘুরেফিরে উঠে এসেছে সিন্ডিকেট সদস্য ও সাবেক প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমানের নাম। এসব ঘটনায় নীরব ভূমিকায় রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি করা হয়নি। তদন্ত কমিটি না হওয়া ও ড. মাহবুব ভিসির আস্থাভাজন হওয়ায় এবারও তিনি পার পেয়ে যাবেন বলে মনে করছেন শিক্ষক ও ছাত্রনেতারা। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী  বলেন, অভিযুক্ত সাবেক প্রক্টরের অডিও ক্লিপের বিষয়ে তদন্ত করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ২৮ ও ২৯ জুন যুগান্তরে ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্য নিয়ে দুই পর্বে ৮টি অডিও ক্লিপ ফাঁস হয়। এসব অডিও ক্লিপে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমানের নাম একাধিকবার উঠে এসেছে।

এরপর থেকে তাকে নিয়োগ বাণিজ্যের মূল হোতা দাবি করে বিক্ষোভ মিছিল ও তার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি করতে দাবি জানায় শাখা ছাত্রলীগ। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জুয়েল রানা হালিম বলেন, মূল হোতা ও মাস্টারমাইন্ড মাহবুবর রহমানের বিরুদ্ধে তদন্ত করলে সবকিছু স্পষ্ট হয়ে যাবে।’

সর্বশেষ ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের নিয়োগ নিয়ে ২৮ জুন প্রকাশিত প্রতিবেদনে প্রার্থীকে নিয়োগ পাইয়ে দিতে বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রুহুল আমিন ও ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এসএম আবদুর রহিম প্রার্থীর সঙ্গে দেনদরবার করেন। এ অভিযোগে তাদের চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্তও করা হয়েছে। একই অডিওতে অভিযুক্ত সাবেক প্রক্টরের নাম উঠে আসে।

 

প্রকাশিত অডিও ক্লিপে ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের নিয়োগ নিয়ে তাকে কথা বলতে শোনা যায়। ওই অডিওতে ড. মাহবুবের আস্থাভাজন রুহুল আমিন চাকরি দেয়ার আশ্বাসে তার বন্ধু এশিয়ান ইউনিভার্সিটির সহকারী অধ্যাপক আবদুল হাকিমকে নিয়োগ প্রার্থী খুঁজতে বলেন।

এসব ঘটনায় ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী দুর্নীতিকারীদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে সংবাদমাধ্যমকে জানান। এরপর ২১ মাস পার হলেও এখন পর্যন্ত কোনো তদন্ত কমিটি হয়নি। এর মধ্যে ফের ২৮ ও ২৯ জুন যুগান্তরে নিয়োগ বাণিজ্য নিয়ে অডিও ফাঁস হয়েছে। এতেও ড. মাহবুবের নাম উঠে এসেছে। এ বিষয়ে অভিযুক্ত সাবেক প্রক্টর সিন্ডিকেট সদস্য প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান  বলেন, ‘আমি অদ্যাবধি কোনো অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত হয়নি। সরকারের সব অর্গানের প্রতি অনুরোধ, যদি আমি কোনো অপরাধ করে থাকি দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা হোক। অন্যথা সততার স্বীকৃতি চাই। কারও ব্যক্তিগত অপরাধের দায়িত্ব আমি নেব না।’

সর্বশেষ

পলাতক সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিম!

নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিমকে মারধরের ঘটনায় গা ঢাকা দিয়েছেন সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিম। সোমবার (২৬ অক্টোবর) দিনব্যাপী পুরান ঢাকার বড় কাটরায় হাজী সেলিমের...

ফরাসি পণ্য বয়কট করতে তুরস্কের জনগণের প্রতি এরদোগানের আহ্বান

বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.)কে অবমাননা করে দেয়া ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাকরনের বক্তব্য দেয়ায় ফরাসি পণ্য বর্জন করতে তুরস্কের জনগণের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট...

নবী-রাসুলরা মানবজাতির মহান শিক্ষক তাদের সম্মান রক্ষা করা সবার দায়িত্ব

নবী-রাসুলরা মানবজাতির মহান শিক্ষক। মানবসভ্যতার সূচনা থেকে তার উন্নয়ন ও বিকাশে তাঁদের অবদান অসামান্য। মানবজাতির জন্য নবীদের আত্মত্যাগ, বিসর্জন ও অবদানের জন্য আল্লাহ ইহকাল...

একদিনে আরও ২০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৩৫

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে একদিনে আরও ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫ হাজার ৮৩৮ জনে। এছাড়া নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে ১...