ব্রেকিং

x

এক হালি পেঁয়াজ ৩০ টাকা

শনিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৯ | ৭:০৭ PM


এক হালি পেঁয়াজ ৩০ টাকা
পেঁয়াজ, ফাইল ছবি

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় একহালি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়। আবার, এক কেজি পেঁয়াজের দামে মিলছে ৫ কেজি সিদ্ধ মোটা চাল। দিন যত যাচ্ছে ভাণ্ডারিয়ায় পেঁয়াজের ঝাঁজ ততই বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে সাধারণ ক্রেতাদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে নিত্য প্রয়োজনীয় এ পণ্যটি। এক সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ৪০ থেকে ৫০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বর্তমানে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার দোকানগুলোতে ১৩৫-১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি পেঁয়াজ। এতে ক্ষোভ বিরাজ করছে সাধারণ ক্রেতাদের মাঝে। দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় কেউ কেউ ২৫০ গ্রাম থেকে সর্বোচ্চ ১ কেজি পর্যন্ত পেঁয়াজ ক্রয় করছেন। আবার কেউ কেউ মাত্র এক হালি পেঁয়াজ কিনছেন। অন্যদিকে অনেক দোকানদার পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন। এতে ব্যবসায়িকভাবে তারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। পাইকারি বাজারে পর্যাপ্ত পেঁয়াজ না থাকায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে বলে দাবি তাদের।



শনিবার উপজেলার বিভিন্ন হাটবাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতি কেজি দেশী পেঁয়াজ ১৩০ থেকে ১৪৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এককাডি (২৬ কেজি) সেদ্ধ মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে ৭৮০ টাকায়। আর প্রতি কেজি চাল বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকায়।

চাল বিক্রেতা কৃষক হাবিব হাওলাদার বলেন, বর্তমানে ৫ কেজি চাল বিক্রি করলে সেই দামে ১ কেজি পেঁয়াজ মিলছে।

ক্রেতা জাহাঙ্গীর জানান, বাজারে তো পেঁয়াজের কোনো সঙ্কট দেখা যাচ্ছে না। প্রতিটি দোকানে পেঁয়াজের স্টক থাকা সত্ত্বেও কেন এত দাম?

ভাণ্ডারিয়া বাজারের ব্যবসায়ী মনির হোসেন জানান, বিদেশী পেঁয়াজের আমদানী না থাকার কারণে পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

ভাণ্ডারিয়া বাজারের চাল ব্যবসায়ী ফাতিমা ভাণ্ডারের প্রোপাইটর সোহেল চাপরাশী জানান, তারা এক কেজি মোটা চাল ৩০ টাকা দরে বিক্রি করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ৭:০৭ PM | শনিবার, ০২ নভেম্বর ২০১৯

যোগাযোগ২৪.কম |

Development by: webnewsdesign.com