ব্রেকিং

x

কাশ্মীরে যুদ্ধের আতঙ্ক নতুন নির্দেশনা দেন ভারত সরকার

মঙ্গলবার, ৩০ জুন ২০২০ | ১০:২২ পূর্বাহ্ণ


কাশ্মীরে যুদ্ধের আতঙ্ক নতুন নির্দেশনা দেন ভারত সরকার
ছবি- সংগৃহীত

ভারতের কাশ্মীরে নতুন করে জারি করা সরকারি নির্দেশনাকে ঘিরে যুদ্ধ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। স্থানীয়রা মনে করছেন, এটি ভারত সরকারের যুদ্ধের প্রস্তুতি। কাশ্মীরে সরকার বেশ কিছু নির্দেশনা জারি করেছে  চীন-ভারত অচলাবস্থার মধ্যে। দুই মাস চলার মতো এলপিজি মজুত করে রেখেছে তারা। সাথে সাথে কারগিলের গান্দেরবাল এলাকার সকল স্কুলগুলোকে সেনা ক্যাম্প বানানোর নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

যদিও নির্দেশনায় দাবি করা হয়েছে, এলপিজির পর্যাপ্ত মজুত করতে হবে কারণ, ভূমিধসের কারণে ন্যাশনাল হাইওয়ে বন্ধ হয়ে গেলে উপত্যকায় গ্যাস সরবরাহের উপর যেন প্রভাব না পড়ে। খাদ্য, বেসামরিক সরবরাহ ও ভোক্তা পরিচালকের দেয়া নির্দেশে বলা হয়, তেল কোম্পানিগুলোর কাছে তাদের স্থানীয় গোডাউনে দুই মাস চলার মতো এলপিজির মজুত থাকতে হবে।
ভারতের প্রশাসন এই প্রথম ভর গ্রীষ্মে এলপিজি সিলিন্ডারের মজুত গড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে । সাধারণত অক্টোবর-নভেম্বরের দিকে শীতের আগে এই উদ্যোগ নেয়া হয়।

 

তুষারপাতের কারণে অনুপযুক্ত হয়ে পড়ে কাশ্মীর উপত্যকার চালাচলের পথঘাট। আলাদা আরেক নির্দেশে গান্দেরবাল পুলিশ সুপার জেলার ১৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে খালি করার অনুরোধ করেন। এগুলোর মধ্যে আইটিআই ভবন, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

তবে এই আদেশগুলো নিয়ে জনগণের মধ্যে প্রবল উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। হাওয়ালের অধিবাসী নাজির আহমেদ বলেন, অনেক দিন ধরে আকাশে জঙ্গিবিমানের গর্জন আমরা শুনছি। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসেও একই ধরনের নির্দেশ জারি করা হয়েছিলো। উপত্যকায় আবারো খারাপ কিছু ঘটার পূর্বাভাস পাচ্ছি। সুত্রঃ মানবজমিন। সম্পাদনা ম\হ। না ৩০০৬\০১



বাংলাদেশ সময়: ১০:২২ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ৩০ জুন ২০২০

যোগাযোগ২৪.কম |

আসামির জবানবন্দিতে আবরার হত্যার বীভৎস বর্ণনা

Development by: Jogajog Media Inc.

বাংলা বাংলা English English