মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০২০
Home শিক্ষাঙ্গন ‘চাইলাম ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি, হইলাম জঙ্গি’

‘চাইলাম ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি, হইলাম জঙ্গি’

- Advertisement -

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রির দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের অনুষদীয় সভায় জঙ্গি, সন্ত্রাসী বলে আখ্যা দিয়েছেন ওই অনুষদের শিক্ষকরা।

এর প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদভূক্ত পাঁচ বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় প্রশাসন ভবনের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ‘জঙ্গি’ ও ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দেয়ার বক্তব্য অনতিবিলম্বে অনুষদকে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

ওই বক্তব্য প্রত্যাহার না করা হলে পরবর্তীতে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারিও দেয়া হয়।

এসময় মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের হাতে ‘চাইলাম ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি, হইলাম জঙ্গি’, ‘আমি জঙ্গি?’, ‘চাইলাম ডিগ্রি, হইলাম সন্ত্রাস’, ‘ডিগ্রি নিয়ে প্রহসন কেন?’, ‘আর নয় কালক্ষেপণ এবার চাই বাস্তবায়ন।’, ‘দাবি মোদের একটাই ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী চাই।’, ‘যে তদন্ত কমিটি আমাদের জঙ্গি বলে তাদের সিদ্ধান্ত মানি না।’ এমন বিভিন্ন প্রতিবাদমূলক ফেস্টুন প্রদর্শন করতে দেখা যায়।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘সারা বিশ্ব যেখনে সন্ত্রাসবাদ এবং জঙ্গিবাদ নিয়ে উদ্বিগ্ন। সেখানে আমাদেরকে সন্ত্রাস এবং জঙ্গি বলে বিতর্কিত করা হচ্ছে। ভিসি স্যার নিজেও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়কে জঙ্গিমুক্ত ঘোষণা করেছেন। এ অবস্থায় অনুষদের এ মন্তব্য বিশ্ববিদ্যালয়কে বিতর্কিত করে তুলছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’

মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, ‘চেয়েছিলাম ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি, হয়ে গেলাম জঙ্গি। আমরা যদি জঙ্গি বা সন্ত্রাসী হই এখানে দাঁড়িয়ে আছি গুলি করুন। আর আমরা যদি জঙ্গি হই তাহলে যে সব শিক্ষকরা ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রির আশ্বাস দিয়েছেন তারা জঙ্গির মদদদাতা। অচিরেই এই শব্দদয় অনুষদীয় মিটিংয়ে লিখিতভাবে বাতিল করতে হবে।’

মানববন্ধনের এক পর্যায়ে প্রতিনিধি দল বেলা দুপুর ১২টার দিকে ভিসির প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী সঙ্গে সাক্ষাত করেন। এ সময় তিনি বলেন, একাডেমিক কমিটির সভায় শিক্ষকদের সামনেই এটি বাতিল করা হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীরা অনুষদীয় সভায় এটি লিখিতভাবে বাতিলের দাবি করেন। পরে ভিসির আশ্বাসে তারা মানববন্ধন প্রত্যাহার করেন।

এ বিষয়ে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মমতাজুল ইসলাম বলেন, ‘গত ২৯ এপ্রিলে অনুষদীয় সদস্যরা তাদের আন্দোলন ও কার্যক্রমকে জঙ্গি ও সন্ত্রাসীমূলক বলে আখ্যা দিয়েছেন। পরে গত ২৫ জুন একাডেমিক কাউন্সিলে এই শব্দ দুইটি এক্সপাঞ্জ করা হয়েছে।’

প্রসঙ্গত, ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রির দাবিতে দীর্ঘ ৯ মাস ধরে আন্দোলন করে শিক্ষার্থীরা। ২৩ এপ্রিল একই দাবিতে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান ভবনে আমরণ অনশনে নামে। ওই রাতে অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মমতাজুল ইসলাম ও ছাত্র উপদেষ্টা প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণকে অনুষদের ভেতর অবরুদ্ধ করে রাখেন। ভোর ৪টার দিকে আন্দোলনরত ২২ শিক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশ।

সকালে আন্দোলনে নিষেধাজ্ঞা জারি ভঙ্গ করে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। বাধ্য হয়ে আটকের ১৩ ঘণ্টা পর মুক্তি দেয় তাদের। এ ঘটনায় দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাসে ১১ সদস্যের কমিটি গঠন করে কর্তৃপক্ষ। ২৯ এপ্রিল অনুষদীয় জরুরি সভায় শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেয়ার পরিবর্তে তাদের বিচার চাওয়া হয়।

এ সময় সভার রেজুলেশন খাতায় শিক্ষার্থীদের আচারণকে ‘জঙ্গি’ ও ‘সন্ত্রাসী’ বলে অবহিত করা হয়। দুই মাস পর লিখিত কপি হাতে পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন শিক্ষার্থীরা।

সর্বশেষ

ইরানি বিজ্ঞানী হত্যায় ব্যবহৃত হয়েছে ইসরাইলি অস্ত্র

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের বিশিষ্ট পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদে-কে হত্যা করা হয়েছে দখলদার ইসরাইলে তৈরি অস্ত্রের সাহায্যে। হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত অস্ত্রের ভগ্নাংশ বিশ্লেষণের পর এ বিষয়ে...

বাড়নো হয়েছে আয়কর রিটার্ন জমার সময়

ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের আয়কর ও রিটার্ন জমা দেওয়ার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। আজ জমা দেওয়ার শেষ সময় থাকলেও আরও এক মাস বাড়ানো হয়েছে। সোমবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে...

দেশে আরেও ৩৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৫২৫

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরেও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬ হাজার ৬৪৪ জনে। এছাড়া নতুন করে রোগী...

ঘরের বাইরে মাস্ক না পরলে হতে পারে জেলও

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের মধ্যে ঘরের বাইরে মাস্ক ছাড়া বের হলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের সাজায় কারাগারেও যেতে হতে পারে। আর করোনার তিন কোটি টিকা বিনামূল্যে বিতরণ করবে...