চাপের মুখে ভারতের অর্থনীতি

বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

চাপের মুখে ভারতের অর্থনীতি

জিডিপি প্রবৃদ্ধি ধারাবাহিকভাবে পড়তে পড়তে নতুন অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) ৫ দশমিক ৭ এ এসে ঠেকেছে। দেশটির গাড়ি শিল্পে কর্মী ছাঁটাই শুরু হয়েছে। শুধু ব্যক্তিগত গাড়িই নয়, ভারী ট্রাকের বিক্রি পর্যন্ত কমে গেছে। কিন্তু এর জন্য অর্থনৈতিক মন্দার কথা মানতে নারাজ অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। গাড়ি বিক্রি কমে যাওয়ার জন্য তিনি তরুণ প্রজন্মের রুচি বদলকে দায়ী করেছেন। তার দাবি, তরুণরা এখন রাইড শেয়ারিং ও ক্যাবে চড়তে বেশি পছন্দ করছে। এ কারণেই গাড়ি বিক্রি কমছে।

তবে এই পরিস্থিতিতে গাড়ি শিল্পের পাশে থাকতে চায় কেন্দ্রীয় সরকার। বিক্রি বাড়াতে সরকারিভাবে গাড়ি কেনার সমাধান দিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলি যাতে পুরনো গাড়ির বদলে নতুন গাড়ি কেনার সিদ্ধান্ত নেয় তার জন্যে তিনি চেষ্টা করছেন।

গাড়ি বিক্রি কমার পিছনে রাইড শেয়ারিং ব্যবস্থাকে দায়ী করেছেন ভারতের অর্থমন্ত্রী।

নির্মলা সীতারমন বলেন, গাড়ি কিনতে তরুণদের অনিহা হলো নতুন শতাব্দীর মানসিকতা। তারা গাড়ি কেনার জন্যে ইএমআই দেওয়া পছন্দ করছে না, বরং ওলা-উবার ব্যবহার করতে বা মেট্রোতে চড়তে পছন্দ করছে।”

নরেন্দ্র মোদি সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার ১০০ দিনের সাফল্যের কথা তুলে ধরতে চেন্নাইয়ে গিয়ে এসব কথা বলেন সীতারমন।

তবে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর এই বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে বিরোধী দল কংগ্রেস। তারা বলেছেন, তবে কী নির্মলা সীতারমন বাস ও ট্রাক বিক্রি কমার জন্যেও সহস্রাব্দের মানসিকতাকেই দায়ী করতে চাইছেন?

এনডিটিভির খবরে প্রকাশ, ভারতের বৃহত্তম দুই চাকার গাড়ি প্রস্তুতকারক হিরো মটোকর্পের গত মাসে বিক্রি ২০ শতাংশ কমেছে। একই সময়ে ৩৪ শতাংশ বিক্রি হ্রাস পেয়েছে মারুতি সুজুকিরও। ট্রাক ও ট্রাক্টরের বিক্রিও ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, অশোক লেল্যান্ডের বিক্রি ৭০ শতাংশ এবং এমএন্ডএমের উৎপাদিত গাড়ির বিক্রি ১৫ শতাংশ কমেছে।

বাংলাদেশ সময়: রাত ১২:৪৯ | বুধবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

যোগাযোগ২৪.কম |

Development by: webnewsdesign.com