ব্রেকিং

x

ফারাক্কার কারনে প্রতিনিয়ত খরস্রোতা হয়ে উঠছে পদ্মা; ধ্বস অর্থনীতি ও যোগাযোগ ব্যবস্থায়

শনিবার, ০৫ অক্টোবর ২০১৯ | ৬:১৪ অপরাহ্ণ


ফারাক্কার কারনে প্রতিনিয়ত খরস্রোতা হয়ে উঠছে পদ্মা; ধ্বস অর্থনীতি ও যোগাযোগ ব্যবস্থায়
খরস্রোতা পদ্মা, ছবিঃ সংগৃহীত

ফারাক্কা বাঁধ পুরোপুরি খুলে দেওয়ায় পদ্মায় পানি বাড়ছে দ্রুতগতিতে সেই সাথে পাল্লা দিয়ে প্রতিনিয়ত স্রোতের পরিমান বেড়ে চলছে পদ্মায়। পদ্মার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে তীব্র স্রোতের কারণে। স্রোত বেড়ে যাওয়ায় ঘাটের কাছে ভিড়তে পারছে না ফেরি-লঞ্চ। অন্যদিকে পদ্মায় পানিপ্রবাহ বিপদ সীমার ৩সেঃমিঃ উপর দিয়ে যাচ্ছে যার ফলে সৃষ্ট হয়ছে বন্যা। ১ হাজার ৭৩০ হেক্টর জমির নানা প্রজাতির ফসল পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে রাজশাহীতে। প্লাবিত হয়েছে অঞ্চলের বিভিন্ন চর ও নিচু এলাকা।

রাজবাড়ির দৌলতদিয়ায় তীব্র স্রোতের কারনে ফেরিগুলো চলতে পারছে না স্রোতের বিপরীতে। যার কারনে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন সংস্থা (বিআইডব্লিউটিসি) ফেরী চলাচল বন্ধ রেখেছে। ১৬টি ফেরির মধ্যে চলাচল করছে মাত্র ৩টি ফেরি। ৩টি ফেরি চলাচলরত থাকলেও তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চালাচলে সময় তুলনামুলকভাবে বেশি লাগছে। তীব্র স্রোতের ফলে দুর্ঘটনার কথা মাথায় রেখে এই নৌ-রুটে লঞ্চ চলাচলও বন্ধ রাখা হয়েছে গতকাল দুপুর থেকে। যার ফলে ব্যাহত হয়ে পড়েছে পদ্মার দুই পাড়ের যোগাযোগ ব্যবস্থা।

৪ অক্টোবর ২০১৯, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় আরিচাঘাটের কাছে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ওপর পণ্যবাহী ট্রাক। ছবি: সংগৃহীত

বিআইডব্লিউটিসির সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) মহিউদ্দিন রাসেল জানান, রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটের কাছে স্রোতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় ঘাটে ফেরিগুলো ভিড়তে পারছে না। যাত্রীদের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে যাত্রীবাহী বাসগুলিকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পার করা হচ্ছে। স্রোতের তীব্রতা আরও বেড়ে যাওয়ায় মাত্র ৩টি ফেরি চলতে পারছে। অন্য ফেরিগুলো বিদ্যমান স্রোতের বিপরীতে চলতে পারছে না।

সকালে থেকে পাটুরিয়া ঘাটে পারাপারের জন্য অপেক্ষামান রয়েছে অর্ধশতাধিক বাস ও তিন শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক। পণ্যবাহী ট্রাকগুলো গত চারদিন ধরে পারাপারের অপেক্ষায় ঘাটে আটকা রয়েছে।



ট্রাকচালক মো. আব্দুল মালেক বলেন, তিনি ২ অক্টোবর রাতে পণ্যবোঝাই করে কুষ্টিয়া যাওয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছেড়ে আসেন। প্রথমে তাকে ধামরাইবাথুলী লোড কন্ট্রোল স্টেশনে আটকা রাখে পুলিশ। সেখান থেকে ছেড়ে আসার পর ৩ অক্টোবর সকালে মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার মহদেবপুর এলাকায় তাকে দ্বিতীয় দফায় আটকে রাখা হয়। দুপুরে উথলী সংযোগ মোড়ে আসলে পুলিশ তাকে পাটুরিয়াঘাটের দিকে যেতে না দিয়ে আরিচার দিকে পাঠিয়ে দেয়। কবে তিনি ফেরিতে উঠতে পারবেন তা বলতে পারছেন না।

এভাবে চলতে থাকলে যা অচিরেই বিরূপ প্রভাব ফেলবে অর্থনীতিতে। তাছাড়া দিনের পর দিন আটকা পড়ে থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন এসব ট্রাকের চালক ও সহযোগীরা।

পদ্মা নদীর পানি বেড়ে বিপদসীমার তিন সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে পাবনার পাকশী হার্ডিঞ্জ ব্রিজ পয়েন্টে। রাজশাহী অঞ্চলের বিভিন্ন চর ও নিচু এলাকা প্লাবিত হওয়ায় মানুষের মাঝে সৃষ্টি হয়েছে বন্যা আতঙ্ক। প্রবল স্রোতের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছে রাজশাহী শহর রক্ষার বাঁধ।

রাজশাহীতে চলছে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া বাঁধ সংস্করণের কাজ, ছবিঃ সংগৃহীত

রাজশাহীতে চলছে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া বাঁধ সংস্করণের কাজ, ছবিঃ সংগৃহীত

আজ পাবনা পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) জানায়, পদ্মার পানি বিপদসীমার ৩সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। পানি বাড়ার কারণে সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোতে যেমন কৃষি ফসলের ক্ষতি হয়েছে, তেমনি পানি নামার সঙ্গে সঙ্গে নদী ভাঙনের মুখে রয়েছে জেলার বেশকিছু ইউনিয়ন। বিশেষ করে পাবনার সুজানগর এলাকাসহ জেলা নদী তীরবর্তী ১০টি ইউনিয়ন এ হুমকির সম্মুখীন রয়েছে।

পদ্মায় পানি বাড়ার কারণে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে জেলার ছয়টি ইউনিয়নের বেশকিছু নিম্নাঞ্চলের মানুষ। ডুবে গেছে শীতকালীন সবজিসহ বিভিন্ন ফসল।

পাবনা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আজহার আলীর বলেন, পানি বাড়ার কারণে পাবনা অঞ্চলের কৃষির ক্ষতির পরিমাণ প্রায় সাত কোটি টাকা। ১ হাজার ৭৩০ হেক্টর জমির নানা প্রজাতির ফসলের ক্ষতি হয়েছে। কৃষকরা ঘরে তোলার আগেই নষ্ট হয়েছে ইরি ধান।

পাবনা সদরের দোগাছি, ভাড়ারা ও ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশি, রুপপুর, লক্ষ্মীকুণ্ড ও দোগাছি ইউনিয়নের পদ্মারপাড় সংলগ্ন চর অঞ্চলের ফসলের ক্ষতি পরিমাণ শতভাগ। জেলার বেশকিছু উপজেলা সুজানগর, ভাঙ্গুড়া, ফরিদপুরে নিম্নাঞ্চলের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পাবনা ঈশ্বরদী উপজেলার পাকশী, রুপপুর, লক্ষ্মীকুণ্ড, সারাবাড়ি ইউনিয়নসহ পাবনা সদরের দোগাছি ইউনিয়নের কমরপুর, চরসাদিপুর, চর আশুতোষপুর, চর সাদিরাজপুর, রানীনগর, পীরপুরসহ পদ্মার পানির নিচে তলিয়ে গেছে প্রায় চরের ১০৫টি বসত বাড়ি।

বাংলাদেশ সময়: ৬:১৪ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৫ অক্টোবর ২০১৯

যোগাযোগ২৪.কম |

৪৯ বছর পরও স্বাধীন বাংলাদেশ পাইনি: ফখরুল
নরসিংদীতে বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ আলহাজ্ব এম.এ হান্নান স্যার ইন্তেকাল করেন

Development by: webnewsdesign.com