বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৯, ২০২০
Home বাংলাদেশ জেলার খবর বিচারকসহ আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন !

বিচারকসহ আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন !

- Advertisement -

নরসিংদী প্রতিনিধি :

কুমিল্লার আদালতে হত্যাকান্ডের রেশ না যেতে যেতেই নরসিংদী আদালতে সংঘটিত দুটি ঘটনায় বিচারকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আদালতের বিচারক এবং বিচার সংশ্লিষ্টদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য নরসিংদী জজ কোর্ট ভবনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হলেও তবে আতংক কাটেনি। দেখা যায় আদালতের বাড়তি নিরাপত্তা হিসেবে আদালতে যাতায়াতকারী লোকজনদের বেগ ও দেহতল্লাশি করছে পুলিশ।

নরসিংদী চীফ জুডিসিয়াল আদালতে পরপর দুটি ঘটনা এবং কুমিল্লার আদালতে প্রকাশ্য দিবালোকে সংঘটিত হত্যাকান্ডের কারণে আদালত সমূহের বিচারকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মধ্যে ব্যাপক আতঙ্কদেখা দিয়েছে। আজ (বুধবার) দুপুরে এমন তথ্যই সাংবাদিকদের জানিয়েছেন নরসিংদী চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) গোপাল চন্দ্র দাস। বর্তমানে আদালতের বিচারকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আতঙ্কগ্রস্ত এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন বলেও তিনি জানান।

আদালতের অনুলিপি বিভাগের তুলনা সহকারি প্রদীপ কুমার দাস জানিয়েছেন, গত ১৪ জুলাই রাতে কে বা কারা আদালতের অফিস কক্ষের জানালার একটি পাট ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। ১৫ জুলাই সকালে অফিস সহায়ক এরশাদ রুমে তালা খুলে গিয়ে দেখেন অফিসের জানালার একটি পাট ভাঙ্গা। অফিস সহায়ক সাথে সাথে ঘটনাটি প্রদীপ কুমার দাসকে জানালে তিনি দ্রুত সেখানে গিয়ে দেখেন কে বা কারা জানালার পা ভেঙে ভিতরে প্রবেশের চেষ্টা চালিয়েছে। এভাবে আদালতে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয়। এ ব্যপারে সদর মড়েল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়। ডাইরিতে তিনি লিখেছেন,দুর্বৃত্তরা তার অফিসের যেকোনো সময় ক্ষতিসাধন করতে পারে এ অবস্থায় তিনি আতঙ্কগ্রস্ত এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

এর আগে গত ১১ জুলাই ঘটেছে আদালতের দ্বিতীয় ঘটনা। নরসিংদী চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের কার্যক্রম চলাকালীন আব্দুস সাত্তার নামে এক ব্যক্তি আদালতের দরজার সামনে ব্যাপক হৈ-হুল্লোড় সৃষ্টি করে। এতে আদালতে কার্যক্রম পরিচালনায় ব্যাঘাত সৃষ্টি হয়। আদালতে উপস্থিত লোকজন আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। এজলাসে বসা অবস্থায় চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রকিবুল ইসলাম বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন। পুরো আদালতে এক অস্বস্তিকর অবস্থার সৃষ্টি হয়। এই অবস্থায় নরসিংদী থানা পুলিশের এসআই মজিবুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে হৈ-হুল্লোড়ক্বারী আব্দুস সাত্তারকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।আটক আব্দুস সাত্তার কোন সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারায় তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। আব্দুস সাত্তার নরসিংদী জেলা শহরের পশ্চিম দত্তপাড়ার মোশারফ হোসেনের পুত্র। পুলিশ তাকে থানায় নিয়ে পুনরায় জিজ্ঞাসাবাদ করে তার বিরুদ্ধে একটি নন এফআইআর প্রসিকিউশন তৈরি করে বিচারের জন্য পুনরায় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করেন।

মোঃসেলিম মিয়া, নরসিংদী প্রতিনিধি

সর্বশেষ

ইসলাম নিয়ে ম্যাক্রঁ’র বিতর্কিত মন্তব্যে ভারতের সমর্থন

ফ্রান্সে সম্প্রতি ক্লাসরুমে মহানবী (সাঃ)’র কার্টুন দেখানোর সূত্রে একজন স্কুল শিক্ষকের শিরচ্ছেদের ঘটনার পর ইসলাম ধর্ম নিয়ে প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁর সাম্প্রতিক কিছু মন্তব্যের বিরুদ্ধে...

শিগগিরই ঢাকায় সফরে আসছেন এরদোয়ান

নিজেদের দূতাবাস উদ্বোধন করতে শিগগিরই ঢাকায় আসছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পরিস্থিতির উন্নতি হলে দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে...

পদ্যতাগের দাবি উপেক্ষা করে পদে থাকবেন থাই প্রধানমন্ত্রী

থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রাইয়ুথ চান-ওচা পদত্যাগের দাবি নাকচ করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, তার পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ হলেও তিনি ক্ষমতা না ছেড়ে বরং প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন...

প্রতারণা মামলায় গ্রেপ্তারের পর জামিন পেল দেবাশীষ বিশ্বাস

প্রতারণা অভিযোগে বুধবার (২৮ অক্টোবর) গ্রেপ্তার হন চলচ্চিত্র পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস। তবে এর কিছুক্ষণ পরে শর্ত সাপেক্ষে জামিন পেয়েছেন এই নির্মাতা। জানা গেছে, ২০১৯ সালের...