শনিবার, জানুয়ারি ২৩, ২০২১
Home আন্তর্জাতিক মোদি-মমতার বাগ্‌যুদ্ধে গরম পশ্চিমবঙ্গ

মোদি-মমতার বাগ্‌যুদ্ধে গরম পশ্চিমবঙ্গ

লোকসভা নির্বাচনের প্রচারের জন্য আজ বুধবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ি ও কলকাতায় আসেন। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যান কোচবিহারে। দুজনেই আজ পরস্পরের বিরুদ্ধে অস্ত্র শাণ দিয়ে বক্তব্য দেন।মোদি আজ বেলা দেড়টায় প্রথমে শিলিগুড়ির জনসভায় যোগ দেন। এরপর বিকেলে তিনি কলকাতায় এসে ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে বিজেপি আয়োজিত সমাবেশে ভাষণ দেন।

কলকাতায় মোদি বলেছেন, মমতার রাজনীতির ভিত নড়ে গেছে। এখন তাঁকে এই অবস্থা থেকে উত্তরণ কঠিন হবে। রাজ্যবাসীও চাইছে না তাঁকে। মোদি আরও বলেন, আজ ব্রিগেডের এই বিশাল সমাবেশই প্রমাণ করে দিয়েছে, আগামী ২৩ মে কারা জিততে চলেছে। ব্রিগেডে এত ভিড় কেউ দেখেনি এর আগে। মোদি বলেন, সার্জিক্যাল স্ট্রাইক থেকে এয়ার স্ট্রাইক—এসব আগে কেউ ভাবতে পারেনি। এখন তা হচ্ছে। ভারতে একসময় এসব ছিল স্বপ্ন।

নরেন্দ্র মোদি বলেন, এখন ভারত নতুন ভারত গড়ার দিকে এগোচ্ছে। মোদি প্রশ্ন করেন, ‘আজ এই এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে কারা প্রশ্ন তুলেছে? কারা সেনাবাহিনীকে নিরাশ করছে? তা জনগণ জানে। মহাকাশে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের কৃতিত্বকে কারা নাটক বলছে, তাও বাংলার মানুষ জানে। তাই তো বলছি, মমতার রাজনীতির ভিত নড়ে গেছে।’

মোদি বলেন, এখন কংগ্রেসের অংশীদার হয়েছে তৃণমূল। কংগ্রেসেরও মেয়াদ শেষ ২৩ মে। বলেন, ‘দেশ রক্ষায় এবং শান্তির জন্য এবার বিজেপিকে ফের ক্ষমতায় আনুন। বিজেপিই বাংলার উন্নয়ন করবে।’

দিনহাটায় মমতা
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আজ বিকেলে কোচবিহারের দিনহাটায় তৃণমূল আয়োজিত এক জনসভায় যোগ দিয়ে বলেছেন, মোদি আর এখন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নন। তিনি মোদিকে ‘এক্সপায়ারি বাবু’ বলে সম্বোধন করে বলেন, মোদির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। তিনি এখন এক্সপায়ারি প্রধানমন্ত্রী।

মমতা তাঁর বিরোধীদের কটাক্ষ করে বলেন, ‘ওঁরা সকালে বাম, দুপুরে কংগ্রেস আর বিকেলে হন বিজেপি। এঁদের চিনে রাখুন।’ বলেন, এই বিজেপি সিবিআইয়ে যাঁদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে, তাঁদের মনোনয়ন দিয়েছে।

মমতা বলেন, বিজেপি গত পাঁচ বছরে দেশের জন্য কিছু করেনি। নোট বাতিল, জিএসটি চালু করে মানুষের দুর্ভোগ বাড়িয়েছে। বাড়িয়েছে বেকারত্ব। উসকানি দিয়েছে সাম্প্রদায়িকতার। ধর্মের নামে বিভেদ সৃষ্টি করেছে।

মমতা বলেন, তাঁর সরকার চিটফান্ডের তদন্ত করে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারও করেছে। বিনিয়োগকারীদের অর্থ ফেরত দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। বলেন, ‘আমরাই কোচবিহারের উন্নয়ন করেছি। ছিটমহল সমস্যার সমাধান করেছি। তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করেছি।’ মমতা বলেছেন, বিজেপির সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক নেই। তাই তো তাদের এ সভা ছাউনি দিয়ে করতে হয়, নিরাপত্তা জোরদার করতে হয়, সড়ক-আকাশপথ বন্ধ করে মানুষের দুর্ভোগ বাড়াতে হয়। তিনি বিজেপিকে ভোট না দিয়ে তৃণমূলকে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান ।

সুত্রঃ প্রথম আলো

 

 

সর্বশেষ

ফেব্রুয়ারিতে মার্কিন সেনেটে অভিশংসন বিচার শুরু হচ্ছে ট্রাম্পের

যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটে ফেব্রুয়ারি মাস থেকে দ্বিতীয়বারের মতো অভিশংসন বিচার শুরু হবে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। সেনেটে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকানদের একটি সমঝোতায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া...

কোস্টগার্ডকে বিদেশি জাহাজে গুলি করার অনুমোদন দিল চীন

চীন সরকার নতুন একটি আইন পাস করেছে যাতে দেশটির কোস্টগার্ডকে বিদেশী জাহাজের ওপর গুলি করার অনুমতি দেয়া হয়েছে। চীনের আশপাশের সমুদ্রসীমায় যেসব উত্তেজনা রয়েছে...

এই প্রথম লকডাউনে হংকং

প্রাণঘাতী করোনার সংক্রমণ রোধে বিশ্বের অধিকাংশ দেশে দফায় দফায় লকডাউন আরোপ হলেও এ থেকে মুক্ত ছিল হংকং। তাদেরকেও শেষ পর্যন্ত লকডাউনের পথে হাঁটতে হলো।...

টিকা নিরাপদ দাবি করে ভয় না পাওয়ার আহ্বান মোদির

ভারতে এক সপ্তাহ আগে প্রয়োগ শুরু হলেও ছোঁয়া যাচ্ছে না প্রত্যাশিত সংখ্যা। নানা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়ায় মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন দেশটির চিকিৎসকদের একটি বড় অংশও।...