ব্রেকিং

x

শিকলে বেঁধে মেয়েকে ধর্ষণ করলেন বাবা

সোমবার, ০২ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৬:২০ অপরাহ্ণ


শিকলে বেঁধে মেয়েকে ধর্ষণ করলেন বাবা
শিকলে বেঁধে মেয়েকে ধর্ষণ করলেন বাবা। ফাইল ছবি

ভারতের রাজস্থান প্রদেশের জালোর জেলায় নিজ বাড়িতেই নির্মম এই নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ওই তরুণী। শিকলে বেঁধে ১৭ বছরের এক তরুণীকে ধর্ষণ করেছেন তার বাবা

পুলিশের কাছে করা অভিযোগে ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী জানিয়েছেন, তার বাবা তার হাত ও পা ভারী চেইন দিয়ে বেঁধে তাকে ধর্ষণ করেছেন। তিনি তার বাবাকে অপর এক নারীর সঙ্গে দেখার পরপরই তার বাবা তাকে শেকল দিয়ে বেঁধে রেখে নির্মম এই নির্যাতন করেন।

পুলিশের দেয়া ভাষ্য অনুযায়ী, ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী বাড়ি থেকে পালিয়ে তার নানার বাড়িতে যান। তারপর তরুণীর হয়ে স্থানীয় থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দাখিল করেন তার মামা। তরুণী বলেছেন, তার বাবা গত কয়েকদিন ধরেই তাকে চেইন দিয়ে বেঁধে রেখে নিয়মিত ধর্ষণ করতেন।

ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর মামা বলেন, সাত বছর আগে তার বোন অভিযুক্ত ধর্ষককে ছেড়ে চলে যান। স্বামীর হাতে প্রতিনিয়ত নির্যাতিত হওয়ার পর বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। তারপর তিনি অন্য একজনকে বিয়ে করে। তবে তার মেয়ে বাবার সঙ্গেই ছিল এতদিন।

বাবার হাতে নিয়মিত নির্যাতিত হতে থাকা ওই তরুণী গত শুক্রবার সুযোগ পেয়ে ওই বাড়ি থেকে পালিয়ে যেতে সমর্থ হয়। সে বাড়ি থেকে পালিয়ে তার মামাদের বাড়ির পাশের একটি মাঠে পড়ে ছিল। এক পায়ে শেকল বাঁধা অবস্থায় তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে যায় মামার বাড়ির মানুষজন।



ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী জানিয়েছেন, তার বাবার অন্য এক নারীর সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। আর তিনি তাদের দুজনকে একসঙ্গে দেখেছিলেন। তারপর থেকেই তার পায়ে শেকল বেঁধে রাখা হয়। তরুণীর অভিযোগ শেকল দিয়ে বাঁধা অবস্থায় তাকে ধর্ষণ করতো তার বাবা।পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা গিরিধর সিং বলেন, পুলিশের কাছে এ নিয়ে একটি অভিযোগ দাখিল হয়েছে। তারপর মামলাটি পুলিশের বিশেষ শাখাল উপ-পরিদর্শককে সেই মামলা তদন্তের ভার দেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর মেডিকেল পরীক্ষাও করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ৬:২০ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০২ ডিসেম্বর ২০১৯

যোগাযোগ২৪.কম |

আসামির জবানবন্দিতে আবরার হত্যার বীভৎস বর্ণনা

Development by: Jogajog Media Inc.

বাংলা বাংলা English English