মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৯, ২০২১
Home others ‘সহযোগীতার হাত চাইনা, ভালোবাসার হাত চাই’

‘সহযোগীতার হাত চাইনা, ভালোবাসার হাত চাই’

 

আদরের ছোট ভাইটার বিয়ে। বাড়িভর্তি আত্মীয় স্বজন। সবাই ব্যস্ত। কেউবা ঘর সাজাতে, কেউ আবার বর সাজাতে। সবকিছু হচ্ছে যার রোজগারের টাকাতে সে তার ঘরে। অন্ধকারে। একা। বাবা, মা, ভাই সবাই নিষেধ করে দিয়েছে বিয়েতে যেতে। পরিবারের কেউ তার ছায়াও দেখতে চায়না। কিন্তু কেন! কি দোষ তার!

কথাগুলো কোন একজন মানুষের নয়। কথাগুলো এমন সব মানুষদের যারা নিজেদের ব্যক্তিত্বের জোরেই শ্রদ্ধা আদায় করে নিতে জানেন।.

তেমনি একজন তানভীর আহমেদ কিংবা তাসনুভা আনন। আর পাঁচটা সাধারন মানুষের মতো তার জীবন নয়। একটু বড় হওয়ার পর থেকেই দেখেছেন, কিভাবে তার প্রতি চারপাশের দৃষ্টিটা ধীরে ধীরে বদলেছে। কখনও চূড়ান্ত উপেক্ষা, কখনও আবার অত্যাধিক কৌতূহল ।

সমাজ থেকে পাওয়া আঘাত-যন্ত্রণা কখনও নীরবে সয়েছেন, কখনও কুঁকড়ে উঠেছেন। তবে দোমড়ানো মোচড়ানো সেই মনটা আজ অহঙ্কারী। তাসনুভা একজন মডেল, অভিনেত্রী। কতো পরিচয় তার। অথচ সব পরিচয় আড়াল হয়ে যায় অন্য আরেক পরিচিতির কাছে। সমাজের চোখে তার পরিচয় তিনি একজন বৃহন্নলা, চলতি কথায় ‘হিজড়া’।

এটা কি তার দোষ?  জন্মেছেন ছেলে হয়ে। কিন্তু ছোট থেকে চেয়েছেন মেয়ে হতে। তার ঈশ্বর তাঁকে এভাবে তৈরি করেছেন। দোষ যদি হয় তবে সেই স্রষ্টার যিনি তৈরি করেছেন। বাকি পাঁচটা ছেলে মেয়ের মতো স্কুলে যেতে শুরু করেন তাসনুভা। কিন্তু বন্ধুরা তার পাশে বসতোনা। মেরে উঠিয়ে দিত, হাসাহাসি করতো। ছেলেরাতো কখনো সখনো নোংড়া স্পর্শও করেছে। সবসময় কোনার দিকের একটা বেঞ্চে বসে বাকিদের দেখতেন। জানালার বাইরে বিশাল একটা আকাশ। সবাই খেলছে। অথচ তিনি একদমই একা।

বাড়িতে মা ভাত মেখে ভাইকে খাইয়ে দিতেন। চেয়ে চেয়ে দেখতেন তিনি। বাবা কখনো পাশে বসে খেতেন না। কেউ তাকে কাছেই ঘেষতে দিতোনা। আরেকটু বড় হলে বাড়ি থেকে প্রায় আলাদাই করে দিল। না পেরেছেন ছেলে হতে, না পুরোপুরি মেয়ে। এই সমাজ তাদের চায়না। শিক্ষিত সমাজের কাছে কতো কাজ আছে সবাইকে দেবার মতো। অথচ তাসনুভাদের করার মতো কোন কাজ নেই। কেন? হিজড়া বলে? দশটা দরজায় কড়া নাড়লে একটাও কেউ খুলে দেয়না। তাদের করার জন্যে সাধারন কোন চাকরি কেউ দেয়না।

আজ ছিনতাই, চাঁদাবাজি করে বলে হিজড়াদের কতো দূর্নাম। এর দায় কার? তাদেরোতো পেট আছে। দুইবেলা দুমুঠো ভাত তো লাগবে। এই সমাজ না দেয় কাজ না দেয় ভাতের নিশ্চয়তা। অথচ অসামাজিক কাজ করলেই বিনে পয়সায় জুটে যায় গালি। তাসনুভা বলেন, “বাবামার ভালো ছেলে হতে পারিনি, সমাজে ভালো মানুষও হতে পারিনি। কিন্তু সারাজীবন একটা হাত খুঁজে বেড়াচ্ছি। আকড়ে ধরতে। সহযোগীতার হাত চাইনা,  ভালোবাসার হাত চাই।”

গল্পটা একা তাসনুভা আননের নয়। এই গল্প তাসনুভা, শাম্মি, সবুজ, সুভাশ, আসমানীদের। একেকজন সত্যিকারের মানুষের গল্প। বেড়ে ওঠার গল্প, টিকে থাকার গল্প।

তানভীর আহমেদ কিংবা তাসনুভা আনন, যে পরিচয়েই হোক তিনি আমাদের সমাজের জন্যে আদর্শ দৃষ্টান্ত।এতো বাঁধা বিপত্তি পেরিয়ে, এতো লড়াই করে আজ তিনি সমাজে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। ১৬ বছর বয়সে ঘর ছাড়া হয়ে যোগ দেন বন্ধু ওয়েলফেয়ার সোসাইটিতে। তারপর শুধুই সামনে এগিয়ে চলা। নতুন জীবনের স্বপ্ন। নতুন হাতছানি। তাসনুভা আজ সাফল্যের শিখরে। কৃতিত্বের সাথে উচ্চমাধ্যমিক এবং স্নাতক শেষ করেছেন। বর্তমানে অভিনয় এর পাশাপাশি করছেন মডেলিং। কাজ করছেন থিয়েটার ৫২ তে। এতোকিছুর মধ্যে থেকেও চালিয়ে যাচ্ছেন পড়ালেখা। স্নাতকোত্তর শেষ করার পর পিএইচডির জন্যে দেশের বাইরে যাবার ইচ্ছে তাসনুভার।

তাসনুভারা হারতে শেখেননি। শত প্রতিকূলতাও তানভীরদের তাসনুভা হতে বাঁধা দিতে পারেনা। ইচ্ছেশক্তির জোর সবকিছুকে হারিয়ে দেয়। বর্তমান তরুন প্রজন্মের মধ্যে আত্মহত্যার কিংবা নেশার প্রবণতা তীব্র। কখনো পরিবারের কারনে,কখনো প্রেমে ব্যর্থ হয়ে। অথচ একবার ভাবুন তাসনুভাদের কথা। এই সমাজে টিকে থাকার কোন কারন তাদের ছিলনা। এই সমাজ তাদের কিছুই দেয়নি। প্রেম ভালোবাসাতো বিলাসিতা। শুধুমাত্র ইচ্ছেশক্তি আর আত্মভিমানই তাদের অস্তিত্বের সংগ্রাম টিকিয়ে রেখেছে। তারা আজ অনুপ্রেরণা যোগান হাজারো লড়াকু তাসনুভাকে।

তাসনুভারা আপনার আমার মতো নারী কিংবা পুরুষের গন্ডিতে সীমাবদ্ধ নেই। তারা মানুষ। সত্যিকারের লড়াই করে টিকে থাকা মানুষ। একদিন আসবে যখন তাসনুভারা ভাবতে শেখাবেন তথাকথিত ভদ্র সমাজকে, চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেবেন সমাজের ক্ষতটা ঠিক কতটা গভীর। সময় এখন পরিবর্তনের। সমাজের এবং দৃষ্টভঙ্গির।

Author : Dolon Champa Dutta

Student of Media studies and journalism

সর্বশেষ

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬৯৭

মহামারি করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৭ হাজার ৯২২ জনে। এছাড়া গত...

অষ্ট্রেলিয়ার ২০২১ সালে সীমান্ত খোলার সম্ভাবনা নেই

ভ্রমণকারীদের জন্য চলতি বছর অষ্ট্রেলিয়ার আন্তর্জাতিক সীমান্ত খোলার সম্ভাবনা নেই। করোনা ভাইরাসের টিকা দেয়া সত্ত্বেও সীমান্ত বন্ধ রাখার কথা জানালেন দেশটির শীর্ষ একজন স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। অষ্ট্রেলিয়ার...

ইশরাকের খালাসের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে দুদকের আপিল

ঢাকার সাবেক মেয়র প্রয়াত সাদেক হোসেন খোকার পূত্র বিএনপি নেতা প্রকৌশলী ইশরাক হোসেনকে খালাসের রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেছে দুদক। বিচারপতি মো. সেলিমের একক হাইকোর্ট...

জার্মানি থেকে ফিরে আসা রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা নাভালনি গ্রেফতার

রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সি নাভালনিকে রোববার গ্রেফতার করা হয়েছে। জার্মানি থেকে মস্কোতে ফিরে আসার পর তাকে গ্রেফতার করা হয়। গত কয়েক মাস ধরে তিনি...