শুক্রবার, নভেম্বর ২৭, ২০২০
Home others স্বপ্নের মালয়েশিয়া- (পর্ব ২)

স্বপ্নের মালয়েশিয়া- (পর্ব ২)

- Advertisement -

উচ্চমধ্যবিত্তের বেড়াতে যাবার প্রথম পছন্দ, আর এ দেশের রেমিটেন্সের প্রধান ভিত গুলোর অন্যতম নাম মালয়েশিয়া। সর্বমোট ১৩ টি রাজ্য এবং ৩ টি ঐক্যবদ্ধ প্রদেশের মাধ্যমে গঠিত এশিয়ার দক্ষিন পূর্ব কোণের একটি দেশ। প্রথম পর্বে মালয়েশিয়ার ভৌগলিক অবস্থান, দেশটির জনপ্রিয়তা এবং দেশটি সম্পর্কে প্রাথমিক ধারনা দেওয়া হয়েছে।এই পর্বে আলোচনা করবো মালয়েশিয়ায় বসবাসকারী একজন বাংলাদেশির জীবনযাত্রা নিয়ে।

বাংলাদেশের শ্রমিকদের এখন প্রথম পছন্দ মালয়েশিয়া। বাংলাদেশী ছাত্র ভ্রমণ পিয়াসী মানুষ এবং সেকেন্ড হোম প্রত্যাশীদের একটা বড় অংশের ভরসার নাম মালয়েশিয়া। তো কেমন আছেন মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীরা ? আজ ধারাবাহিক রিপোর্টের দ্বিতীয় পর্বে থাকছে তেমনি একজন স্বপ্নের খোঁজে মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমানো বাংলাদেশির কথা।

মোঃ ওয়াহিদুর রহমান অহিদ। হঠাৎ একদিন ঠিক করলেন মালয়েশিয়া যাবেন। তখন ১৯৯১ সাল। মালয়েশিয়া তখনো এতোটা অর্থনৈতিক সামর্থ অর্জন করেনি। তবুও এশিয়ার নয়া শক্তি হিসেবে অভির্ভূত হওয়ার জানান ঠিক ই দিয়েছিলো দীর্ঘদিনের লৌহ মানব মহাথির মুহাম্মদের হাত ধরে। সে যাই হোক, ১৯৯১ এর এক বিকেলে অহিদ সাহেব পা রাখলেন মালয়েশিয়ায়। এর পর কঠোর পরিশ্রম নিষ্ঠা আর মেধা দিয়ে নিজেকে নিয়ে গেছেন এক অন্য উচ্চতায়। প্রথম দিকে দেশের কথা খুব মনে পড়তো। মাঝে মাঝে ইচ্ছে করতো ফিরে আসতে নিজের গ্রাম কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে। কিন্তু তবুও মাটি কামড়ে পড়ে থাকেন অহিদ। বছর খানেক চাকরি করে ১৯৯২ এর শেষে শুরু করেন নিজের ব্যবসা। সেও আবার চাকরির পাশাপাশি। ১৯৯২ সালের ডিসেম্বরে একটা বড় রিস্ক নিয়ে ফেলেন তিনি। পুরোদমে ব্যবসায়ী বনে গেলেন। শুরু করেন মালয়েশিয়ায় ম্যানপাওয়ার (জনশক্তি) আমদানির কাজ। বেশ ভালোই চলছিলো। এর পর হঠাৎ ই নেমে আসে খাঁড়া। ১৯৯৪ সালে মালয়েশিয়া সরকার বন্ধ করে দিলো বাংলাদেশ থেকে জনশক্তির আমদানি। বেঁচে থাকার তাগিদে ব্যবসাই পালটে ফেললেন অহিদ। মিয়ানমার থেকে আমদানি শুরু করলেন পিঁয়াজ, মরিচ ও নানা ধরনের সবজি।

নিজের সততা, সাহস আর আত্মবিশ্বাস বদলে দিলো অহিদের জীবন। প্রবাস-ই হয়ে উঠলো নিজের দেশের মতো। যেখানে একদিন গিয়েছিলেন অভিবাসী হয়ে সেই দেশই তাকে দিলো গাড়ি বাড়ি প্রতিপত্তি সবকিছু। ধীরে ধীরে জায়গা করে নিলেন মালয়েশিয়াস্থ বাঙ্গালি কমিউনিটিতেও। স্থানীয় মালয়েশিয়ানরাও তাকে মনে করেন আদর্শ হিসেবে। বাংলাদেশও তাকে বানিয়েছে সি আই পি (কমার্শিয়ালি ইম্পর্টেন্ট পার্সন)।

১৯ বছরের অহিদের বয়স আজ ৪৫। বয়স যেমন বেড়েছে, বেড়েছে ব্যবসায়িক পরিপক্কতাও। নিজের এ অবস্থানে আসার পেছনে সৃষ্টিকর্তার কাছে শুকরিয়া আদায় করে ওয়াহিদুর বলেন, ‘ভাগ্য বদল করতে এখানে এসে যা করতে চেয়েছি, তার চেয়েও বেশি পেয়েছি। এখানে ব্যবসার সুযোগ আছে। শুধু সঠিক পথে বিনিয়োগ করা প্রয়োজন।’ এখন একেবারে পুরোপুরি মালয়েশিয়ান বনে গেছেন তিনি। স্ত্রী, সন্তান নিয়ে সেখানেই বসবাস তার। যাবেনই বা কোথায় তার সব কিছু যে সেখানেই নিজ হাতে গড়া। সে সাথে সরকারী অনুমতিও পেয়েছেন স্থায়ী ভাবে থাকার। এতো বৈভবের মধ্যেও দেশের কথা ভোলেন নি। নিজের এলাকায় চালাচ্ছেন নানা ধরনের গণমুখী কর্মকান্ড।

এভাবেই এগিয়ে চলছে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশীরা। প্রবাসীদের ত্রাতা হয়ে উঠছেন অহিদেরা।তবুও আমাদের এই মানুষ গুলোকে ছোট হতে হচ্ছে অবৈধ অভিবাসী আর হুন্ডির জন্য।তবে সুদিন আসবেই। আর স্বপ্ন পূরণ হবে অহিদের মতো আরো অনেকের।

মালয়েশিয়া বিষয়ক কোন কিছু জানতে অথবা জানাতে চাইলে ইমেইল করতে পারেন। আমার ইমেইল ঠিকানায়। dolonbangladesh@gmail.com

পরবর্তী পর্বের জন্যে রইলো আপনাদের অগ্রিম আমন্ত্রণ।

Author : Dolon Champa Dutta

Student of Media studies and journalism

সর্বশেষ

সড়ক দুর্ঘটনায় সৌদিতে ৩ বাংলাদেশি নিহত

সৌদি আরবের তায়েফ তুরাবায় দুটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) সকাল ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের সবার বাড়ি...

নায়ক-নায়িকা ছাড়াই সিনেমা মুক্তির ঘোষণা

‘নবাব’ শিরোনামের একটি সিনেমার নায়ক হয়েছিলেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক শাকিব খান। এবার ‘নবাব এলএলবি’ সিনেমায় নবাব হচ্ছেন এই চিত্রনায়ক। একাধিকবার মুক্তির সময় পিছিয়ে অবশেষে...

নাটোর শহর থেকে ১৭ জন মাদকসেবী গ্রেফতার

নাটোর শহরের মল্লিকহাটি এলাকায় অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন এলাকার ১৭ মাদকসবীকে আটক করেছে র‌্যাব। গতকাল বুধবার রাতে প্রকাশ্যে মাদক সেবনের সময় তাদের আটক করা হয়।...

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে আলী যাকেরকে শেষ শ্রদ্ধা

শেষ শ্রদ্ধা জানাতে কিংবদন্তি অভিনেতা ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দসৈনিক আলী যাকেরের মরদেহ নেয়া হয়েছে রাজধানীর আগারগাঁওস্থ মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে। সেখানে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায়...