সংবাদ সম্মেলনে কেঁদে কেঁদে ইলিয়াসের বিচার চাইলেন সুবাহ

‘আমি হাসপাতালে ছিলাম। আমার পাশেই ছিল একজন রেপ হওয়া শিশু। তাহলে বোঝেন হাসপাতালে আমি কোন অবস্থায় ছিলাম? আমি যে হাসপাতালে ছিলাম, তখন মাত্র দুজন সাংবাদিক আমাকে দেখতে গিয়েছিলেন। তাঁরা দেখেছেন আমি ঢাকা মেডিক্যালে কোথায় কী অবস্থায় ছিলাম’—সংবাদ সম্মেলনের শেষভাগে এসে এসব কথা বলতে বলতে কান্নায় ভেঙে পড়েন সুবাহ।

সুবাহ একজন অভিনয়শিল্পী। বেশ কয়েকটি মুক্তিপ্রাপ্ত নাটকে অভিনয় করেছেন। অভিনেতা জাহিদ হাসানের বিপরীতে অভিনয় করা একটি নাটক বেশ আলোচিতও হয়েছে। চলচ্চিত্রাঙ্গনেও পা বাড়িয়েছেন। ইতিমধ্যে ছয়টি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। একদম মুক্তির দ্বারপ্রান্তে রয়েছে ‘বসন্ত বিকেল’ চলচ্চিত্রটি।

ঠিক এর আগেই ডিসেম্বরের ১ তারিখে কণ্ঠশিল্পী ইলিয়াসের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। এই খবর প্রচারের পরপরই সম্পর্কে ফাটল ধরে। এক পর্যায়ে দুজনই আলাদা থাকতে শুরু করেন। এখানেই শেষ নয়, দুজনই থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। সুবাহ ইলিয়াসের বিরুদ্ধে মারধর ও ভ্রূণ নষ্টের অভিযোগ করেন। অন্যদিকে ইলিয়াস সুবাহর বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ করেন।

এরই মধ্যে ইলিয়াসের সঙ্গে কথোপকথনের বেশ কয়েকটি অডিও প্রকাশ হয়ে পড়ে। যার মধ্যে একটি অডিওতে শোনা যায় তাঁর সুইডেনপ্রবাসী স্ত্রীকে বলছেন, সুবাহ তাঁকে ব্ল্যাকমেইল করে বিয়ে করেছেন। অবশ্য এ ব্যাপারে ইলিয়াস কালের কণ্ঠকে স্পষ্ট করেছেন। তিনি বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্যই এমনটা করতে হয়েছে তাঁকে। পরে আরেকটি অডিওতে শোনা যায় সুবাহর সঙ্গে অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কথোপকথন।

সুবাহ এর আগে কালের কণ্ঠকে বলেছিলেন, তিনি নুন দিয়ে হলেও ইলিয়াসের ভাত খেতে চান। কিন্তু ইলিয়াস এ ঘটনার পর বিচ্ছেদের পথ বেছে নিচ্ছেন বলে জানান। যার ফলে মঙ্গলবার রাজধানীর বনানীর নিজ বাসায় সংবাদ সম্মেলন আহ্বান করেন শাহ হুমায়রা সুবাহ।

সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙে পড়েন অভিনয়শিল্পী সুবাহ। বলেন, ‘ইলিয়াস আমাকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে চলে গেছে। সে আমার বাসায় এসে মদ খেত। আমার বুয়া সেসব পরিষ্কার করত। সে চলে যাওয়ার সময় আমার টাকা-পয়সা, গয়না সব নিয়ে গেছে। এসব কিছুর ফুটেজ সিসিটিভিতে ধারণ করা আছে। আমি এর বিচার চাই।’

সুবাহ বলেন, ‘আগে আমি এসব কিছুর বিচার চাই। এরপর সংসার। আইন সবার জন্য সমান। ইলিয়াসের ছোট ভাই ছাত্রলীগ করে। তারা আমাকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। আমাকে মামলা-হামলার হুমকি দিচ্ছে।’

এখনো সুবাহ অভিনীত কোনো চলচ্চিত্র মুক্তি পায়নি। রফিক সিকদারের ‘বসন্ত বিকেল’ সিনেমার মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন তিনি। অন্যদিকে গায়ক ইলিয়াস হোসাইন ‘না বলা কথা’, ‘আমার ভেতর’, ‘এক পলকে’, ‘নীল নয়না’, ‘সারাটি জীবন’ গানগুলোর মাধ্যমে শ্রোতামহলে জনপ্রিয়তা লাভ করেন। সূত্রঃ বেঙ্গলি টাইমস। সম্পাদনা ম\হ। না ০১০৫\০৫

Related Articles