রাশিয়া থেকে জ্বালানি আমদানিতে রেকর্ড গড়লো চীন

ইউক্রেনে হামলার পর রাশিয়ার ওপর কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে পশ্চিমা বিশ্ব। এর পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে ইউরোপে জ্বালানি সরবরাহ উল্লেখযোগ্য হারে কমিয়ে দিয়েছে রাশিয়া। তাছাড়া ইউরোপও চাচ্ছে রাশিয়ার ওপর জ্বালানি নির্ভরতা কমাতে। এমন পরিস্থিতিতে চীন ও রাশিয়ার মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও জোরদার হয়েছে। বেড়েছে আমদানি-রপ্তানি।

গত মাসে চীন রাশিয়া থেকে রেকর্ড পরিমাণ জ্বালানি আমদানি করেছে। এসময় দেশটির মোট জ্বালানি পণ্য আমদানির পরিমাণ দাঁড়ায় ৮৩০ কোটি ডলারে। জানা গেছে, ক্রুড তেল, গ্যাস ও কয়লার জন্য বেইজিং ক্রমেই মস্কোর ওপর নির্ভরশীলতা বাড়াচ্ছে। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) ব্লুমবার্গের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চীনের শুল্ক পরিসংখ্যান বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, আগস্টে চীন রাশিয়া থেকে যে পরিমাণ জ্বালানি আমদানি করেছে তা গত বছরের তুলনায় ৬৮ শতাংশ বেশি। ইউক্রেনে হামলার পর অর্থাৎ গত ছয় মাসে চীন মোট চার হাজার ৪০০ কোটি ডলারের জ্বালানি পণ্য আমদানি করেছে রাশিয়া থেকে।

যদিও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধকে কেন্দ্র করে আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানির মূল্য অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে। এদিকে অর্থনৈতিক মন্দা ও করোনা নীতির কারণে এ বছর চীনের জ্বালানি আমদানি কমেছে। কারণ চাহিদা আগের থেকে কম। তবে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ইস্যুতে রাশিয়া ও চীনের মধ্যে বাণিজ্য বেড়েছে বহু গুণ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত মাসে অর্থাৎ আগস্টে চীনে ৮ দশমিক ৩৪ মিলিয়ন টন তেল রপ্তানি করে রাশিয়া। জুলাইতে এর পরিমাণ ছিল ৭ দশমিক ১৫ মিলিয়ন টন। এক বছর আগে রপ্তানি করে মাত্র ৬ দশমিক ৫৩ মিলিয়ন টন। যুদ্ধ শুরু হওয়ার আগে চীন সবচেয়ে বেশি আমদানি করে সৌদি আরব থেকে। আসন্ন মাসগুলোতে চীনে আরও জ্বালানি পণ্য রপ্তানি করতে চায় রাশিয়া। সূত্রঃ একুশেটিভি। সম্পাদনা ম\হ। না ০৯২১\০৯

Related Articles