যৌথ বাণিজ্যকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করবে ইরান ও তুর্কমেনিস্তান

ইরান এবং তুর্কমেনিস্তান একটি গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করবে। এর ফলে দু'দেশের মধ্যকার বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরো বাড়বে এবং দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যকার অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরো বেশি গভীর হবে।

গতকাল (মঙ্গলবার) ইরানের বাণিজ্যমন্ত্রীর রেজা ফাতেমি আমিন এবং তুর্কমেনিস্তানের মন্ত্রিপরিষদের উপপ্রধান বাতির আদ-দায়েভ যৌথ বাণিজ্যকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা নিয়ে আলোচনা করেন।

আদ-দায়েভ এবং তুর্কমেনিস্তানের একটি শীর্ষ পর্যায়ের অর্থনৈতিক প্রতিনিধিদল গতকাল তেহরান পৌঁছেছে। এদিনই তুর্কমেনিস্তানের প্রেসিডেন্ট সরদার বারদিমুহামেদভ দু দিনের সরকারি সফরে ইরান আসেন।

ইরানি বাণিজ্যমন্ত্রী ফাতেমি আমিন বলেন, ইরান এবং তুর্কমেনিস্তানের মধ্যে একটি অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তিতে সই করার জন্য দুই দেশের মধ্যে যৌথ বাণিজ্যকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা দরকার। যৌথ বাণিজ্য কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা এবং দু'দেশের মধ্যে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য চুক্তি হলে দুই প্রতিবেশী মধ্যে বাণিজ্যের পরিমাণ উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়ে যাবে।

ইরানি বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, তুর্কমেনিস্তানের প্রতিনিধিদল ইরান সফরের সময় তাদের সঙ্গে অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্যের ক্ষেত্রে দু দেশের পণ্যের তালিকা নিয়ে আলোচনা হবে যাতে এসব পণ্য কম শূল্কে দুদেশ রপ্তানি করতে পারে।

গত বছরের আগস্ট মাসে ইরানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে সাইয়েদ ইব্রাহিম রায়িসির  সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর তুর্কমেনিস্তানের সঙ্গে অর্থনৈতিক এবং জ্বালানি সম্পর্ক জোরদার করেছে। ইরানের ভেতর দিয়ে তুর্কমেনিস্তানের প্রাকৃতিক গ্যাস অন্য দেশে রপ্তানির জন্য তেহরান ও আশখাবাদের মধ্যে চুক্তি হয়েছে। অন্যদিকে, ইরান থেকে বিভিন্ন ধরনের পণ্য মধ্য এশিয়ার দেশগুলোতে রপ্তানি করার জন্য তুর্কমেনিস্তানের ভূমি ব্যবহার করতে পারছে।

এরইমধ্যে ইরান ও তুর্কমেনিস্তানের শ্রমমন্ত্রী একটি সমঝোতা স্মারকে সই করেছেন যাতে দু'দেশের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার হয়। এছাড়া, ইরান ও তুর্কেমেনিস্তানের মধ্যে পণ্যবাহী কার্গো চলাচল বাড়ানোর জন্য পরিকল্পনা নিয়েছে। সূত্রঃ পার্সটুডে। সম্পাদনা ম\হ। না ০৬১৫\০৫

Related Articles