রাশিয়া জিতবেই, সন্দেহ নেই: পুতিন

ছবি- সংগৃহীত

ইউক্রেনের মাটিতে রাশিয়া জিতবে। এতে কোনো সন্দেহ নেই। বুধবার দেশটির দ্বিতীয় শহর সেন্টপিটার্সবার্গে এমন মন্তব্যই করেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

একটি কারখানার কর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘বিজয় সুনিশ্চিত, এই ব্যাপারে কোনো সন্দেহ নেই। রাশিয়ার জনগণের ঐক্য-সংহতি, যোদ্ধাদের সাহস, বীরত্ব এবং সামরিক-শিল্প খাতের অবদান-এসব কিছুই আমাদের জয় এনে দেবে।

আগের দিন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, সশস্ত্র বাহিনীতে বড় পরিবর্তন আনছে রাশিয়া। নৌ, মহাকাশ ও কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্র বাহিনীতে যুদ্ধসক্ষমতা আরও জোরদার করা হবে। চলতি বছর থেকে শুরু করে ২০২৬ সালের মধ্যে সশস্ত্র বাহিনীতে ‘বড় ধরনের পরিবর্তন’ আনবে মস্কো।

রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই বলেন, ‘শুধু সশস্ত্র বাহিনীর মূল কাঠামোগত উপাদানগুলোকে শক্তিশালী করার মাধ্যমেই রাষ্ট্রের সামরিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং রাশিয়ান ফেডারেশনে যুক্ত হওয়া নতুন এলাকা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোকে রক্ষা করা সম্ভব।’ ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ইউক্রেনে পশ্চিমারা যে ‘ছায়া যুদ্ধ’ চালাচ্ছে তার জন্যই সশস্ত্র বাহিনীতে এ বড় ধরনের পরিবর্তন দরকার হয়ে পড়েছে।

রুশ বাহিনীর অগ্রযাত্রা রুখতে ইউক্রেনকে নিয়মিত অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে যাচ্ছে পশ্চিমারা। সম্প্রতি দেশটিকে অত্যাধুনিক ট্যাংকসহ আরও ভারী অস্ত্র দেওয়া নিয়েও আলোচনা চলছে। এমন সময়ই রাশিয়ার দিক থেকে সশস্ত্র বাহিনীকে ‘ঢেলে সাজানো’র এ নতুন ঘোষণা এলো। গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে সেনা পাঠিয়ে শুরুর দিকে দেশটির বিপুল অংশ কবজায় নেওয়া রুশ বাহিনী পরে বেশ খানিকটা পিছুও হটে; এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে ডিসেম্বরে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সামরিক বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ধীরে ধীরে ১৫ লাখে উন্নীত করার প্রতিশ্রুতি দেয়।

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের কাছের ব্রোভারি শহরে হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীসহ অন্তত ১৮ জন নিহত হয়েছেন। ইউক্রেনের স্টেট ইমার্জেন্সি সার্ভিসের একটি হেলিকপ্টার বুধবার সকালে ব্রোভারি শহরের একটি কিন্ডারগার্টেনে ধাক্কা মেরে পাশে একটি আবাসিক ভবনের কাছে বিধ্বস্ত হয়। এ দুর্ঘটনায় ইউক্রেনের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেনিস মোনাসতিরস্কি ও তার ফার্স্ট ডেপুটি এবং স্টেট সেক্রেটারিসহ অন্তত ১৮ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে তিন শিশুও রয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় ১০ শিশুসহ অন্তত ২২ জন আহত হয়েছেন বলেও জানা গেছে। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানা যায়নি। দুর্ঘটনার কারণ জানার জন্য তদন্ত চলছে। কিয়েভের গভর্নর ওলেক্সি কুলেবা জানান, কিন্ডারগার্টেন ও আবাসিক ভবনের পাশে সোমবার সকালে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হওয়ার সময় কিন্ডারগার্টেনটিতে শিশু ও শিক্ষক, কর্মকর্তারা ছিলেন। তাদের দ্রুত সরিয়ে নেওয়া হয়।

দুই হাজারের বেশি সাইবার হামলা চালিয়েছে রাশিয়া : ইউক্রেনের অভিযোগ, গত এক বছরে দেশটির ওপর দুই হাজারের বেশি সাইবার হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। মঙ্গলবার দেশটির একজন সিনিয়র কর্মকর্তা এ বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, এই সাইবার হামলার কারণেই তিনি যথাসময়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হতে পারেননি। খবর হিন্দুস্তান টাইমস। ইউক্রেনের স্পেশাল কমিউনিকেশন্স অ্যান্ড ইনফরমেশন প্রোটেকশনের স্টেট সার্ভিসের প্রধান ইউরি শিগোল সাংবাদিকদের বলেন, রাশিয়ার এ ধরনের সাইবার হামলার কারণে তার লাইভস্ট্রিম সম্মেলন ১৫ মিনিট দেরিতে শুরু করতে হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে শিগোল জানান, ২০২২ সালে ইউক্রেন মোট ২,১৯৪টি সাইবার আক্রমণের শিকার হয়েছে, যার মধ্যে ১,৬৫৫টি হয়েছে মস্কোর ২৪ ফেব্রুয়ারি আক্রমণের পরের সময়ে। এসময় ইউক্রেনের সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোও ৫৫৭টি সাইবার হামলার মুখে পড়েছে।

বেশিরভাগ হামলার জন্যই মস্কো দায়ি উল্লেখ করে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, অন্যসব ক্ষেত্রে যেমন সাইবার হামলাকারীরা পরিচয় গোপনের চেষ্টা করে, রাশিয়ার ক্ষেত্রে ব্যাপারটি কিছুটা ব্যতিক্রম। মূলত যেসব হ্যাকাররা রাশিয়ার সঙ্গে কাজ করে, অধিকাংশই সময় তারা তাদের অধিভুক্তি গোপন করে না।

তাদের প্রায় সবাই সামরিক বাহিনী বা এ ধরনের সংস্থায় চাকরি করে এবং তাদের বেতন দেয় এফএসবি (রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস)। ইউক্রেনের এসব অভিযোগের ব্যাপারে মস্কোর তাৎক্ষণিক মন্তব্য পাওয়া যায়নি। সূত্রঃ রয়টার্স। সম্পাদনা ম\হ। না ০১১৯\০২

Related Articles